১ম BCS দিয়েই ক্যাডার হয়ে প্রশংসায় ভাসছেন বুয়েটের শিক্ষার্থী তকী ফয়সাল। ৩৭তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফলাফলে প্রশাসন ক্যাডারে প্রথম হয়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের(বুয়েটের) তকী ফয়সাল।

তাকে নিয়ে ইতোমধ্যেই অনলাইনে আলোচনা শুরু হয়েছে। সকলের প্রশংসায় ভাসছেন তকী ফয়সাল।

তকী ফয়সাল বগুড়া জিলা স্কুল থেকে মাধ্যমিক এবং আজিজুল হক কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাস করেন। দুটোতেই গোল্ডেন GPA-5 পেয়ে ভর্তি হন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ইলেকট্রিক অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং(EEE) বিভাগে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলাফলও করেছেন অসম্ভব ভালো।

তকী ফয়সাল বলেন, “‘বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় শুধু Academic পড়াশোনাকেই প্রাধান্য দিয়েছি। BSc চূড়ান্ত ফলাফলের পর বড় ভাইয়ের উৎসাহে BCS’এর পড়া শুরু করে দিলাম। আমার বড় ভাই রফি ফয়সালও ৩৪তম বিসিএসে প্রাণিসম্পদ ক্যাডার। তাঁর পরামর্শই আমার বেশি কাজে লেগেছে। ভাইয়ের দেখানো পথে হেঁটেই সফলতা পেয়েছি।

তিনি বলেন, খুদে বার্তার মাধ্যমে ফলাফল দেখে কিছুটা বিস্মিত হই। ১ম হবো, সেটা কখনোই ভাবিনি। ফলাফলের পর থেকেই আত্মীয় আর বন্ধুরা শুভকামনা জানাতে লাগলেন। খুবই ভালো লাগছে।

তকীর ফয়সালের বাবা “মোকাররম হোসেন” উত্তরা ব্যাংকের কর্মকর্তা এবং মা নাজমুন নাহার গৃহিণী। দুজনই তাঁকে সারাক্ষণ উৎসাহ দিয়ে যেতেন।”

নিজের চেষ্টা আর পরিশ্রমে এই ফলাফল হয়েছে বলে জানালেন তকী ফয়সাল।

প্রশাসনে চাকরি নিয়ে তকী বলেন, “আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষে অনেকে দেশের বাইরে চলে যায়। আমি চেয়েছি দেশে থাকতে। দেশের জন্য কাজ করতে। এই জন্য প্রশাসন ক্যাডার একটি ভালো প্ল্যাটফর্ম।

তিনি নতুনদের উদ্দেশ্যে বলেন, “BCS-এ সাফল্য পেতে লেগে থাকতে হবে, একটা গাইডলাইন তৈরি করে এগোতে হবে। তাহলেই লক্ষ্যে পৌঁছানো যাবে।”

সুদর্শন চেহারার তকী ফয়সালের মুখভর্তি দাড়ি। মাথায় টুপি আর গায়ে লম্বা পাঞ্জাবি।

এ কারণে তাকে নিয়ে একটু আলাদা আলোচনাই তৈরি হয়েছে ফেসবুকে। যেখানে এখন মাদরাসা পড়ুয়া অথবা টুপি দাড়িকে হেয় চোখে দেখার প্রবণতা দেখা যায় সেখানে তাদের ছেলের এমন BCS-এ চমক একটু ব্যতিক্রমী রঙ তো লাগবেই।

অনেকেই তাই তকীকে নিয়ে গর্ব করে লিখছেন, “সমাজে ভেদাভেদ তৈরির অপচেষ্টাকারীদের জন্য তকী অনন্য উদাহরণ। পোশাক ও বর্ণ সাম্প্রদায়িকদের চোখ খুলবে তকী ফয়সাল!

ফেসবুকে ফেরদৌসি নামের একজন লিখেছেন, “এবার ৩৭তম BCS-এ প্রশাসন ক্যাডারে প্রথম হয়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের তকী ফয়সাল ভাই। PSC-কে অনেক ধন্যবাদ যে তারা এখন শুধু মেধা দেখে নিয়োগ দেন। কে মাদরাসায় পড়লো, কে দাড়ি রাখলো, আর কে টুপি পরলো তা দেখেন না, এখন শুধু মেধাই হচ্ছে সব।””

Leave a Reply

Your email address will not be published.